August 2019

হ্যালো বন্ধুরা আশা করি সবাই ভালো আছেন আজ আপনাদের জন্য নিয়ে হাজির হয়েছি 2019 সালের সেরা Android Launcher গুলো নিয়ে চলুন শুরু করা যাক। 


আমরা কম বেশী স্টাইল জিনিসটাকে পছন্দ করে থাকি তেমনি আমাদের শখের Android মোবাইলকে স্টাইলিশ দেখানোর জন্য আমরা অনেকেই Launcher ব্যবহার করে থাকি আজ সেই Launcher গুলো দেখে নিবো যা কিনা 2019 এর সেরা Launcher হিসাবে প্রাধান্য পাচ্ছে।



Best light and easy launchers:



  • Evie Launcher:
  • যারা খুব দ্রুত কাজ করে এমন Launcher খুজে থাকেন তারা ব্যবহার করে দেখতে পারেন।
  • স্টাইলিশ তো আছেই তাছাড়াও এটা সম্পূর্ণ Free এবং আপনি আপনার কাস্টমাইজ করা Layout এর
  • Backup রাখতে পারবেন আপনার Google Drive এ সরাসরি।
  • এর সম্পর্কে আরো জানতে কিংবা ডাউনলোড করতে চলে যান নিচের লিংকে।
  • Evie Launcher Download Link
  • Microsoft Launcher:
  • আপনি যদি ভেবে থাকেন যে Microsoft Android এর জন্য হুবহু উইন্ডোজ ফোন এর মত বানিয়েছে  তাহলে আপনি ভুল ভাবছেন। Microsoft Launcher কেবল  Android এর জন্য Native 
  • অভিজ্ঞতাই নয়, পাশাপাশি এটি Boot Time ফিচারের জন্য শীর্ষ-মানের, প্রায়ই এর আপডেট আসছে এবং 
  • Nova Launcher  ছাড়াও কয়েকটি Launcher এর মধ্যে এটি একটি - Edge-থেকে-Edge Widget Placement  এবং Subgrid পজিশনিংও সরবরাহ করে থাকে!
  • তাছাড়াও আপনি চাইলে আপনার Microsoft Account টি Launcher এ লগিন করে Microsoft
  • এর কম বেশী সকল কাজ করতে পারবেন।

Best customization launchers:



  • Nova Launcher:
  • Nova Launcher দিয়ে আপনি Customize করার অসাধারন ফিচার উপভোগ করতে পারবেন।
  • আপনি পাবেন দ্রুত গতির Launcher এর অভিজ্ঞতা।আপনার Customize করা সকল কিছু আপনি
  • Backup রাখতে পারবেন। অন্যের Customize করা ফাইল আপনি Import করতে পারবেন।
  • Drawer আপনার মনের মত করে সাজিয়ে নিতে পারবেন সাথে Widget গুলো সবচেয়ে বড় কথা 
  • এটা আমার পছন্দের Launcher গুলোর মধ্যে একটি তাই ডাউনলোড করতে চলে যান সরাসরি নিচের 
  • লিংকে Play Store এর প্রাইম ভার্সনের দাম ৩০০ টাকা তবে ফ্রিতে লুফে নিতে চাইলে......
  • Nova Launcher Download Link
  • Action Launcher:
  • অসাধারন Theme Build ফিচারের পাশাপাশি পাবেন Fast Speed. Pie ভার্সনের মোবাইলের জন্য
  • অনেক কার্যকরী একটি Launcher. সম্পূর্ন Adaptable এর থেকেও বিস্তারিত জানতে ঘুরে আসুন 
  • Google Play Store থেকে নিচে ডাউনলোড লিংক দেওয়া হলো।
  • Action Launcher Download Link

Honorable mention launchers:



  • Best app drawer: Smart Launcher 5
  • এই Launcher এ আপনি পাবেন home screen ফিচার সাথে থাকবে grid-less widget placement system. আরো থাকবে সম্পূর্ন নতুন ফিচার Page System ও Drawer ফিচার তো আছেই। 
  • Gesture & Swipe ফিচার সহ এর মূল্য ৩৯০ টাকা আপনি চাইলে নিচের লিংক থেকে ফ্রি তে প্রো ভার্সন ডাউনলোড করে নিতে পারেন 
  • Smart Launcher 5 Download Link
  • Best business launcher: BlackBerry Launcher
  • এই Launcher টি আপনাকে অনেক ডায়নামিক ফিচার দিতে সক্ষম আর এই Launcher টি 
  • Shortcut Key এর জন্য অনেক জনপ্রিয়। এর ফিচার টি আপনাকে অনেক মজার অভিজ্ঞতা দিবে
  • চালনো টা ও সহজ আর DOD Certified মোবাইল BlackBerry এর ফিচার গুলোও এখানে আপনি 
  • পাবেন প্রথম ৬০ দিন পর Advertise দেখানো আরম্ভ করবে তাই চাইলে Ad Free ভার্সন ক্রয় করতে
  • পারেন অথবা নিচের লিংক থেকে Mod ভার্সন ডাউনলোড করে নিতে পারেন।
  • BlackBerry Launcher Download Link


তাহলে কেমন লাগলো কমেন্টে জানাতে ভুলবেন না কিন্তু আর আপনার কিছু জানার থাকলে কমেন্টে জানান ইনশাআল্লাহ সমাধানের চেষ্টা করবো।

আর আমার ভালো লাগা জোস একটি Launcher ডাউনলোড করতে নিচের পোষ্ট টি একবার ঘুরে আসুন।


তাহলে আজকের মত বিদায় দেখা হবে অন্য কোন দিন নতুন কিছু নিয়ে।

হ্যালো বন্ধুরা আশা করি সবাই ভালো আছেন আজ আপনাদের জন্য নিয়ে হাজির হয়েছি সেই মানের একটি Screen Recorder 4 সফটওয়্যার আপনার পিসির জন্য চলুন শুরু করা যাক।


Screen Recorder 4 Review:

প্রথমেই বলে নিচ্ছি Screen Recorder 4 হচ্ছে CyberLink পরিবারে সদস্য। আর এই CyberLink এর জন্ম হয়েছিলো ১৯৯৬ইং সালে যা কিনা CyberLink Corp. নামে পরিচিত।এক কথায় বলতে গেলে CyberLink পুরো বিশ্বজুড়ে  multimedia software এবং AI facial recognition technology এর হাত ধরে Lead করছে।
CyberLink সেই ১৯৯৬ সাল থেকে আমাদের সেবা দিয়ে আসছে এ পর্যন্ত তাদের ৪০০+ মিলিয়ন সফটওয়্যার এবং Apps বিশ্বের বিভিন্ন স্থানে পৌছে গেছে গ্রাহকের দুয়ারে আর Award এর কথা বলতে গেলে ১০০০+ Global Award তারা নিজেদের দখলে নিতে সক্ষম হয়েছে।

Screen Recorder 4 Review With ScreenShort:

 আপনি আপনার কম্পিউটার থেকে Vlogger,Gamer,Screen Recorder ইত্যাদি কাজ গুলো কোন লিমিটেড টাইম ছাড়া সবথেকে ভালো কোয়ালিটির অভিজ্ঞতা পেতে Screen Recorder 4 এর বিকল্প নাই আর সাথে আপনি Hot Key ফিচার তো পাবেন যাতে সহজেই কন্ট্রোল করতে পারেন।
 রয়েছে বিল্ড Editing Tools যা ব্যবহার করা খুব সহজ আর আপনি আপনার ভিডিও কে এই ফিচার দিয়ে ছাটাই বাছাই সংযোগ ছাড়াও অনেক কিছুই করতে পারবেন।
 আর এতে নতুন যুক্ত হয়েছে Chroma Key যা দিয়ে আপনি আপনার ভিডিও এর Background কে দিতে পারবেন ডায়নামিক লুক। আপনি Overlay Effect দিতে পারবেন এখন থেকে কারন ইহাও নতুন যুক্ত হয়েছে।
Facebook, Youtube ছাড়াও আপনি আপনার মত করে Custom Server এ লাইভ স্ট্রিম করতে পারবেন এই ফিচারটিও নতুন যুক্ত করা হয়েছে।

 অন্যান্য সফটওয়্যার থেকে CPU & GPU কম খরচ করে থাকে যার ফলে আপনি ভিডিও বানাতে অনেক মজাই পাবেন আর Gaming অথবা Reaction ভিডিও বানাতে ব্যবহার করতে পারেন কারন Screen Recorder 4 এ একসাথে webcam এবং Screen একই সাথে রেকোর্ড কিংবা Live Stream করতে পারবে।
 আপনি প্রফেশনালদের মত করে Presentations তৈরী করে Customer কিংবা বস এর সামনে উপস্থাপন করতে পারবেন।
 এতে নতুন আরো যুক্ত হয়েছে লাইভ webcam & Mic এর কার্যকলাপ এর উপর নজরদারী করার সুবিধা ।
 আপনি সম্পূর্ন HD Quality তে Video Live Stream করতে পারবেন।
এক কথায় এই সফটওয়্যার টি আপনার অনেক কাজ সহজ করে দিতে সক্ষম তা গেমার হোক কিংবা Vlogger অথবা অফিশিয়াল নয়তোবা টিউটোরিয়াল। আমি তো শুধু রিভিউ লিখে গেলাম আপনি যদি মনে করেন যে সফটওয়্যার টি আপনার দরকার তবে নিচের লিংক থেকে ডাউনলোড করে নিন।


Minimum System Requirements:

Operating System
Microsoft Windows 10, 8.1, 7 SP1 (Windows 10 64-bit recommended)
Processor (CPU)
Intel Core™ i-series or AMD Phenom® II and above
Graphics Processor (GPU)
Desktop recording 
1GB VGA VRAM or higher
Game recording
3GB VGA VRAM or higher
Memory
2GB
Hard Disk Space
600MB for product installation
Sound Card
Windows compatible sound card is required
Internet Connection
Internet connection also required for initial software & file formats activation
Screen Resolution
1024 x 768, 16-bit color or above

(অফিশিয়াল তথ্য)

Screen Recorder 4 Download Link:


নিচের থেকে Pre-Activated ভার্সন ডাউনলোড করে নিন।


তাহলে আপনারা ডাউনলোড করে ইন্সটল দিন আর সফটওয়্যার টির মজা নিন, আর যদি পোষ্ট টি ভালো লেগে থাকে তবে কমেন্ট করে জানাতে ভুলবেন না কিন্তু।
আর আগামীতে কি ধরনের সফটওয়্যার আপনারা চান তা কমেন্টের মাধ্যমে আমাকে জানাতে ভুলবেন না কিন্তু।


তাহলে আজকের মত বিদায় দেখা হবে অন্য কোনদিন নতুন কিছু নিয়ে।


হ্যালো বন্ধুরা আশা করি সবাই ভালো আছেন আজ আপনাদের জন্য নিয়ে হাজির হয়েছি কম্পিউটার দিয়ে ভিডিও রেকোডিং, ছবি তোলা , টিউটোরিয়াল ভিডিও অথবা Background Record / Game Record , লাইভ ফিল্টারিং সহ Animojis , Video Trim ইত্যাদি ফিচার নিয়ে গঠিত You Cam 8 Software যার মূল্য ৪,২২৩ টাকা তার প্রি এক্টিভেট ভার্সন আপনাদের সাথে শেয়ার করার জন্য তো চলুন শুরু করা যাক রিভিউ।

আমরা শখের বসেই হোক আর প্রফেশনাল কাজ থেকে শুরু করে সিকিউরিটি ক্যামেরা কিংবা ভিডিও কল নয়তোবা লাইভ স্ট্রিম করার কাজে Laptop এর ক্যামেরা ব্যবহার করে থাকি কিন্তু আপনি এর ব্যবহার করছেন কি? আর যদি ব্যবহার না করে থাকেন তবে দেখে নিতে পারেন YouCam 8.
মূল্য যেহেতু 49.99$ ডলার তবে এই সফটওয়্যার এর ফিচার গুলো কেমন হবে চলুন এক নজরে দেখে নেওয়া যাক।


YouCam 8 Review:

YouCam 8 হচ্ছে CyberLink পরিবারে সদস্য আর এই CyberLink এর জন্ম হয়েছিলো ১৯৯৬ইং সালে মানে আজ থেকে ২৩ বছর আগে আর এই CyberLink এর হেডকোয়ার্টার রয়েছে Xindian District, New Taipei,
Taiwan. তাদের আরো সব সফটওয়্যার সম্পর্কে জানতে বা প্রো ভার্সন পেতে আমাকে কমেন্টে জানাতে পারেন।
তবে যেহেতু আমি YouCam 8 শেয়ার করতে এসেছি তাই মূল প্রসংগে ফিরে যাচ্ছি।

আপনি চাইলে YouCam 8 দিয়ে Photo Editing করতে পারবেন ভিডিও Editing করতে পারবেন সাথে লাইভ ভিডিও তে Drawing করতে পারবেন।
আপনি ছবি কিংবা ভিডিও তে লাইভ Filter,Particles এবং Disortions যুক্ত করার পাশাপাশি কিঞ্ছু Animojis এবং Gadget যুক্ত করতে পারবেন যা আপনার ভিডিও কে একটি Realstic লুক দিবে।
আপনি খুব সহজেই যুক্ত করে নিতে পারবেন লাইভ ভিডিও ফিল্টার যা আপনার ভিডিও এর কোয়ালিটিকে তুলে ধরতে সক্ষম হবে অন্য এক লেভেলে।
মাইয়াগুলান তো ফেস বিউটিফুল , কিউটফুল করতে চায় তাদের জন্য রয়েছে আকর্ষনীয় লাইভ মেকআপ করার সুবিধা।
আপনি যদি চান তবে এই সফটওয়্যার ব্যবহার করে ফেস লগিন চালু করতে পারবেন আপনার উইন্ডোজ কম্পিউটারে আপনার চেহারা না দেখালে খুলবেই না আর সাথে Surveillance Mode তো রয়েছেই।
 আপনি চাইলে কনফারেন্স কিংবা ভিডিও চ্যাট করতে পারবেন আর সেই ভিডিও তে দিতে পারবেন ঐতিহাসিক Effect (ঐতিহাসিক বলতে হাহা বুঝাতে চেয়েছি।
ধরুন আপনি আমার মত কৃপন বিদ্যুৎ বিল বেশী ঊঠার ভয়ে কম ওয়াটের লাইট লাগাইছেন আপনাগো লাইগাও  চিন্তা কইরা তারা লাইভ লাইটিং শার্পনেস এবং ডি নয়েজ ফিচার রেখেছে।
আপনারা চাইলে লাইভ স্ট্রিম করতে পারবেন ফেসবুক ইউটিউব ছাড়া অনেক জনপ্রিয় সোশ্যাল সাইটে একবার চিন্তা করে দেখুন এক সফটওয়্যার দিতে কত কাজ করা যাচ্ছে তবে এখানেই শেষ নয় পিকচার আবি ভি বাকী হে মেরী দোস্ত।
যখন কম আলো থাকবে তখন লাইভ Skin Smoothing করা যাবে যা নতুন যুক্ত হয়েছে এই ভার্সনে।
আপনি Live Video তে যুক্ত করতে পারবেন Real Time ভিডিও Effect আর সাথে Frame এবং নানান স্ক্রিন সহ আকর্ষনীয় আরো অনেক কিছু।
আপনার ভিডিও তে যুক্ত করতে পারবেন অর্জিনাল Theater কালার আর HD কোয়ালিটি আপনি ব্যবহার না করলে বোঝানো যাবেনা।
আরো আছে Video Trim এর সুবিধা আপনার ভিডিও থেকে অদরকারী অংশ মুছে ফেলার কাজে আসবে যার ফলে আলাদা করে অন্য সফটওয়্যার অনেক কাজ আপনাদের করতে হবেনা একটি সফটওয়্যার মেটাবো অনেক গুলো কাজের সুবিধা এই তো রইলো আমার রিভিঊ এবার ডাউনলোড করা না করা আপনাদের হাতে আর তবে উপকারে আসলে ধন্যবাদ দিতে ভুলবেন না কিন্তু।

YouCam 8 Download:


আগেই বলে নিচ্ছি এই সফটওয়্যার এর সাইজ 309MB যদিও গুগল ড্রাইভ লিংক।



সবশেষে:

সময় থাকলে আপনার ছোট ভাইটার পোষ্টের Advertise প্রতিদিন একবার করে ক্লিক করে দিবেন এতে ছোট ভাইটার উপকারে আসবে আর নতুন নতুন জিনিস নিয়ে হাজির হতে আমারো ভালো লাগবে।

কেমন লাগলো জানাতে ভুলবেন না কিন্তু আর আপনারা আর কি ধরনের সফটওয়্যার কিংবা গেমস চান কমেন্টে জানাবেন আমি আপনাদের সাথে শেয়ার করার চেষ্টা করবো।

তাহলে আজকের মত বিদায় দেখা হবে অন্য কোন দিন নতুন কিছু নিয়ে।

সৌজন্যেঃ
 মোজিলা ফায়ারফক্স বা সহজভাবে ফায়ারফক্স একটি মুক্ত এবং মুক্ত-উত্স ওয়েব ব্রাউজার যা মজিলা ফাউন্ডেশন এবং এর সহায়ক সংস্থা মোজিলা কর্পোরেশন দ্বারা বিকাশ করা হয়েছে। ফায়ারফক্স সরকারীভাবে উইন্ডোজ 7 বা আরও নতুন, ম্যাকোস এবং লিনাক্সের জন্য রয়েছে; ওপেনবিএসডি, নেটবিএসডি, ইলুমোস এবং সোলারিস ইউনিক্স সহ বিভিন্ন ইউনিক্স এবং ইউনিক্স-এর মতো অপারেটিং সিস্টেমের জন্য এর অফিশিয়ালি রয়েছে।সহজ বাংলায় এটির ভাইবোন, অ্যান্ড্রয়েডের জন্য ফায়ারফক্সও রয়েছে। ফায়ারফক্স ওয়েব পৃষ্ঠাগুলি রেন্ডার করতে গেকো লেআউট ইঞ্জিন ব্যবহার করে, যা বর্তমান এবং প্রত্যাশিত ওয়েব মান প্রয়োগ করে 2017 সালে, ফায়ারফক্স সমান্তরালতা এবং আরও স্বজ্ঞাত ইউজার ইন্টারফেস প্রচার করতে কোড নাম কোয়ান্টামের অধীনে নতুন প্রযুক্তি যুক্ত করা শুরু করে আইওএসের জন্য ফায়ারফক্স একটি অতিরিক্ত সংস্করণ 12 নভেম্বর, 2015 প্রকাশিত হয়েছিল।
এই হলো মোটামুটি Firefox এর একটি সাধারণ ইন্ট্রু।যা আসলে খুবই অল্প ভাষায় লেখা।যদি ফায়ারফক্স এর ব্যাপারে কথা বলতে যাই তবে প্রায় ঘন্টা পেরিয়ে যাবে।
আর আজ আমি যা নিয়ে কথা বলব তা হলো ফায়ারফক্স কে অন্য মাত্রা যোগ করা এক্সটেনশন। যা Mozila Add-on নামেই পরিচিত।এই সকল এক্সটেনশন আপনার ব্রাউজিং দক্ষতা এবং আপনার ব্রাউজিং কে সহজ এবং আপনার অনালাইন স্ট্রেটেজিকে আরো সহজ করে দিবে।
৩ ধরনের Add on রয়েছে মজিলায়।এগুলো হলোঃএক্সটেনশন,প্লাগিন,থিম।

এক্সটেনশন ঃআসি এক্সটেনশন এর কথায়।এটি মূলত ফায়ারফক্স এর একটি মূল এবং বেসিক বিষয়।এই এক্সটেনশন ব্যবহার করে আপনি অনেক সাইট ব্রাউজ করতে এবং সাইটগুলো এনালাইসিস করতে পারবেন।
ফায়ারফক্স এ ঘাটলে প্রায় লক্ষাধিক এক্সটেনশন পাবেন।

তারপর আসে প্লাগিনঃএই প্লাগিন দিয়ে অনেক সহজে আপনার সারফিং করতে পারবেন তাছাড়া আপনি যদি ব্লগার হোন তবে Addon আপনার জন্যই।

থিমঃথিম হলো মজিলার একটি বিশেষ দিক।এই থিম ব্যবহার করলে আপনি আপনার আপ্পকে দিতে পারবেন অনন্য লুক।যা সবাই দিতে পারে না।এর জন্যও রয়েছে অনেক থিম।

আজ এটুকু।এই মজিলা নিয়ে আমি সিরিজ করব।এটি হলো প্রথম পর্ব। পরের টিউনে আপনাদের জন্য দারুন খবর নিয়ে আসব।তাই সাথেই থাকুন।
এবং wap4dollar দিয়ে auto ইনকাম করতে আমাকে ইনবক্স করতে পারেন।১০০% রিপ্লাই পাবেন।ধন্যবাদ।
আর দোয়া রাখবেন আমার জন্য।বিজে শিখুন।অন্যকে শিখান।

হ্যালো বন্ধুরা আশা করি সবাই ভালো আছেন আজ হাজির হয়েছি  Tinker Bell সিরিজের ২য় পর্ব নিয়ে তো চলুন দেরী না করে শুরু করা যাক আজকের মুভি রিভিউ।


মুভিটি সর্ব প্রথম প্রকাশ পায় October 27, 2009ইং সালে যার Director হলো Klay Hall.
মুভিটি তৈরী করতে খরচ হয়েছিলো ৩০ থেকে ৩৫ মিলিয়ন ইউএসডি ডলার।
বক্স অফিস হিট খায় $8,582,265 মিলিয়ন ইউএসডি ডলার তাহলে বুঝতেই পারছেন।
আর Disnep এর মুভির রেটিং নিয়ে ভাবতে হবেনা।
মুভিটির সাইজ 170MB.
মুভিটি যদিও English Language এর তবে আমি Hindi Dubbed শেয়ার করছি।

Tinker Bell Lost Treasure Review:


প্রতি বছরের একটা সময় আসে যখন পরীদের ম্যাজিকাল Pixie Dust Tree এর জন্য Blue Pixie Dust সংগ্রহ করতে হয় এবং তা সম্ভব হয় চাঁদ এবং Moon Stone এর বদৌলতে। প্রতি বছর সেক্টর বানানোর জন্য পরীদের নির্বাচিত করতে হয় যেমন Garden Fairy, Animal Fairy, Light Fairy, Snow Fairy etc থেকে তবে এবার সেই দায়িত্ব পায় Tinker Bell তাকে ডাকা হয় রানীর মহলে এবং Moon Stone ধরিয়ে দিয়ে সেক্টর বানানোর কাজ আরম্ভ করে দিতে বলা হয়।
 এবং তাকে আগে বানানো কিছু সেক্টর দেখানো হয়। যাই হোক রানীর মহলে প্রবেশের আগে ভেবেছিলো সে আজ যা করেছে তা নিয়েই হয়তো সভা শুরু হবে কারন সে নৌকা বানিয়ে চালাতে চালাতে গাছের মাথায় ঊঠে গিয়েছিলো যাই হোক সে কাজে মন দিলো কারন Pixie Dust না থাকলে সকল পরী হারাবে তাদের ম্যাজিকাল পাওয়ার।
Tinker Bell এর কাজে সাহায্য করবে বলে Terence ঠিক করলো এবং যেই ভাবা সেই কাজ সে প্রতিদিন Tinker Bell কে ঘুম থেকে ঊঠানো তার ঘর পরিস্কার রাখা সহ তার দরকারী সব কাজ করার চেষ্টা করছিলো কারন সে তার ভালো বন্ধু হতে চায়।কিন্তু Tinker Bell এটা সহ্য করতে পারছিলোনা তার কাজে অন্য কেউ হস্তক্ষেপ করুক কিন্তু বলতেও পারছিলোনা Terence কে সরাসরি তাই সে বুদ্ধি করে Terence কে ধারালো কিছু আনার জন্য পাঠালো যাতে সে কিছুক্ষন একা একা তার কাজ সম্পূর্ন করতে পারে।
কিন্তু Terence একটি কম্পাস নিয়ে আসে যা Tinker Bell এর সদ্য বানানো সেক্টর টি ভেংগে মুচড়ে দেয় আর তাই Tinker Bell প্রচন্ড রেগে যায় এবং Terence এর সাথে দূর্ব্যবহার করে ভাগিয়ে দেয়। কিন্তু কিছুক্ষন পরে রাগ ঝারার জন্য কম্পাসে লাথি মেরে বসে যার ফলে কম্পাসের ঢাকনা খুলে যায় এবং মহা মূল্যবান Moon Stone ভেংগে যায় যা দেখে Tinker Bell এর ভয়ে কলিজা শুকিয়ে যায়।
Clank এবং Booble এর আগমন ঘটে এবং তারা জানায় যে কিছুক্ষনের মধ্যে পরীদের একটি অনুষ্ঠান শুরু হবে এবং Tinker Bell কে সেখানে যাওয়া উচিৎ। না চাইতেও গেলো এবং Fairy Mairy কে একটু চাল খাটিয়ে জিজ্ঞাসা করে ২টা Moon Stone হলে আরো বেশী কার্যকরী কিছু করা যেত, কিন্তু Fairy Mairy জানায় ৩০০ হাজার বছর ধরে শুধু একটাই Moon Stone রয়েছে যা কিনা Tinker Bell এর কাছে যা শুনে Tinker Bell বেহুশ হওয়ার অবস্থা।
কিছুক্ষনের মধ্যে নাটক শুর হবে এবং Tinker Bell সেই নাটক থেকে জানতে পারলো একটি আয়না রয়েছে যা কিনা তিনটি Wish পূরন করতে সক্ষম কিন্তু এক Pirate দুইটি Wish খরচ করে ফেলেছে আর একটি মাত্র Wish বাকী রয়েছে। তবে সেই আয়না রয়েছে সাত সমুদ্র তেরো নদীর পরে।
Tinker Bell সিদ্ধান্ত নিলো সে সেই আয়না খুজে বের করে Moon Stone ফিরিয়ে আনবে আর সে জন্য অনেক দূর যেতে হবে তাই তার Extra Pixie Dust দরকার কিন্তু সে পেলোনা কারো কাছ থেকে শেষমেশ Terence এর কাছে চায় কিন্তু সেখানেও নিরাশ হয় তবে না থেমে তৈরী করে ফেলে বেলুন আকৃতির কিছু একটা যা তাকে নিয়ে যাবে সেই আয়নার খোজে তবে ২ দিনের ভিতর সেক্টর দিতে হবে এই চিন্তা মাথায় বনবন করে ঘুরছে।
সে রওনা হয়ে গেলো এবং এক সময় তার ক্ষুধা অনুভব হয় এবং সে খাবারের প্যাকেট দেখে খালি হয়ে গিয়েছে সেকি খাবার তো ছিলো দেখা গেলো Bliss (জোনাকী) সব খেয়ে সাবাড় করে ফেলেছে কি আর করা চলে যেতে বললো Bliss কে কিন্তু সে চায় Tinker Bell কে সাহা্য্য করতে যাক অবশেষে Tinker Bell রাজী হয়ে যায় এই ভেবে Bliss অন্ধকারে কাজে আসবে।
এক সময় গল্পে বলা জায়গার মত একটি জায়গা Tinker Bell এর চোখে পড়ে এবং সে বেলুন গাছে বেধে bliss কে পাহারা দিতে বলে নিজে জায়গাটাকে কাছ থেকে দেখতে গেলো। ঐ দিকে ঝড় বেলুন ঊড়িয়ে নিয়ে যায় আর Bliss এসে Tinker Bell কে বোঝাতে চেষ্টা করে যে বেলুন চলিয়া গেছে। খুজতে লাগলো কিন্তু পেলোনা আর নিচে পড়ে অজ্ঞান হয়ে গেলো Tinker Bell.
জ্ঞান ফিরে Bliss কে দেখতে পেলো Tinker Bell এবং বললো যে তার খিদে পেয়েছে তার পক্ষে আর সামনে যাওয়া সম্ভব নয়। Bliss গিয়ে বনের বন্ধু বান্ধব ডেকে নিয়ে আসে যা Tinker Bell কে খাবার এনে মেহমানদারী করে এবং সেই কাংখিত পথে যেতে সাহায্য করে কিন্তু এক গুহায় গিয়ে পড়লো বিপদে।
কারন দুজন পাহাড়ায় আছে এবং তারা Tinker Bell কে ভিতরে প্রবেশ করতে দিবেনা আর দানব গুলো নিজেরাই তর্ক করা আরম্ভ করলো আর এই সুযোগ কাজে লাগিয়ে Tinker Bell তাদের পাশ কাটিয়ে সামনে আগালো।
এবং অনেক কিছুরপর সে সেই জাদুর আয়না হাতে পেলো এবং Wish করতে গিয়ে ভুলে Bliss এর উপর রেগে গিয়ে উলটা Wish করে ফেললো যে Bliss এর বাত্তি নিভে যায় এবং তা কার্যকর হয়ে গেলো।
যা তার শেষ ভরসাও গেলো Tinker Bell এবার ভেংগে পড়লো আর Terence কে মনে করলো যে ও পাশে থাকলে সাহায্য করতে পারতো তাকে। আর ঐ দিকে Tinker Bell এর ঘরে গিয়ে Moon Stone এর ভাংগা অংশ দেখতে পেয়ে Terence বুঝতে পারলো Tinker Bell সমস্যায় আছে এবং তার সূত্র ধরে Tinker Bell কে খুজতে বের হয়ে গেলো।
আর Tinker Bell আয়নাতে Terence কে দেখতে পেলো.........।।


এখন দেখার বিষয় হলো Tinker Bell কি পারবে তাদের সেক্টর উপহার দিতে কারন সে Moon Stone ভেংগে ফেলেছে যার ফলে সব পরীর ম্যাজিক শেষ হয়ে যাবে Tinker Bell কি পারবে সব কিছু বাচাতে না নিজেই ভেগে যাবে? আর সে কি পারবে তার ম্যাজিকাল ক্ষমতা ছাড়া ঠিক সময়ে পৌছাতে আর Terence কি সত্যিই Tinker Bell এর কোন সাহায্যে আসতে পারবে? Bliss কি আর কখনো তার পাছায় আলো জালাতে পারবেনা?

এই সব প্রশ্নের উত্তর পেতে হলে ডাউনলোড করে মুভিটি আপনাকে দেখতে হবে যার লিংক নিচে দেওয়া হলো।

Tinker Bell Lost Treasure Download - Hindi:





তাহলে আপনারা মুভিটি উপভোগ করুন আর কেমন লেগেছে জানাতে ভুলবেন না কিন্তু ...।

আজকের মত বিদায় দেখা হবে অন্য কোন দিন নতুন কিছু নিয়ে।
আমরা সবাই জানি মাল্টি স্ক্রিন নামক ফিচারের কথা।যা নতুন আপডেট ফোন গুলোতে দেওয়া হচ্ছে।কিন্তু আমরা যারা পুরাতন এবং সস্তা ফোন চালাই তাদের কাছে এটা শুধু কল্পনা।তাই আমি আপনাদের কল্পনা দূর করে দিতে আমি হাজির।
আসুন আজকে পরিচয় হই একটি দারুন অ্যাপ এর সাথে।যা দিয়ে আপনি আপনার মোবাইল এ মাল্টি স্ক্রিন সাপোর্ট করে না তারা অনায়েসে মাল্টি স্ক্রিন করে চালাতে পারবেন।একসাথে একাধিক সাইট ব্রাউজ করতে পারবেন। তাছাড়া এই অ্যাপটি দিয়ে আপনি একসাথে একাধিক সাইট ব্রাউজ করে নিজের কাজের সময় অরদগেক করে নিতে পারবেন। 
তাহলে আসুন শুরু করা যাক।
প্রথমে এখানে ক্লিক করে প্লেস্টোর  এ চলে যেয়ে অ্যাপটি ডাউনলোড করে নিন।এবং অ্যাপটি ওপেন করুন।
অ্যাপটি চালু করার পর Start এ ক্লিক করুন।
এবার Ad Custom এ ক্লিক করুন।এবং পরে একটি পেইজ আসবে।

এখানে আপনি যেই দুইটা সাইট একসাতগে ব্রাউজ করতে চাচ্ছেন সেটার লিংক দিবেন।এবং Save বাটনে ক্লিক করে সেউভ করে নিবেন।
ব্যাস কাজ শেষ।
 উপরের স্ক্রিনশট এ দেখতে পাচ্ছেন আমি আমার নিজের Wap4dollar দিয়ে auto ইনকাম সাইট গুলোর লিংক দিলাম এবং সেগুলো লোড হয়ে গেল।এবং একই সাতগে সাইট দুটি চালাতে সক্ষম হব।
যা আসলে অনেক মজাদার এবং অনেকের কাছে এই ব্যাপার পুরু নতুন।তাই আশা করি ট্রাই করবেন এবং স্টেপ গুলো ফলো করলে সহজেই সফল হবেন।

আর যদি কেউ Wap4Dollar দিয়ে auto ইনকাম করতে চান তাহলে আমাকে ইনবক্স করতে পারেন।


আজ আর না।আবার নতুন কিছু নিয়ে আসব আগামীতে। ততদিন পর‍্যন্ত সাথে থাকুন এবং দোয়া করবেন আমার জন্য।ধন্যবাদ